জাতীয়বাংলাদেশসারা দেশ

বাংলাদেশ স্কাউটসের প্লাটিনাম মেম্বারশিপ পেলেন মেয়র আতিকুল

বাংলাদেশ স্কাউটসের প্লাটিনাম মেম্বারশিপ পেয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম।

শনিবার (১৭ আগস্ট) রাজধানীর কাকরাইলে জাতীয় স্কাউটস ভবনে বাংলাদেশ স্কাউটসের পক্ষ থেকে তাকে ‘প্লাটিনাম মেম্বারশিপ’ প্রদান করা হয়।

প্লাটিনাম মেম্বারশিপ প্রদানকালে বাংলাদেশ স্কাউটসের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ বলেন, বাংলাদেশ স্কাউটস ফাউন্ডেশনের মেম্বারশিপ পাওয়া অত্যন্ত সম্মানজনক হিসেবে বিবেচিত হয়। যারা বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করেন, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের উন্নয়নে জড়িত, যুব উন্নয়নে অবদান রাখেন, সমাজ সংগঠক হিসেবে জনহিতকর কাজ করেন তাদেরই স্কাউটসের মেম্বারশিপ দিয়ে সম্মানীত করা হয়।

রাজধানীর কাকরাইলে জাতীয় স্কাউট ভবনের শামস হলে ‘পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ’ বিনির্মাণে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতাসহ অন্যান্য দুর্যোগকালে উত্তমসেবা প্রদানের লক্ষ্যে ৯টি সংস্থা, বিভাগ ও মন্ত্রণালয়ের মধ্যে এক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ডিএনসিসি মেয়রকে এ প্লাটিনাম মেম্বারশিপ দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে ডিএনসিসি মেয়র ডেঙ্গু ও এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে জনসচেতনতা এবং সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, বাংলাদেশ স্কাউটসের কর্মপরিধি দেশব্যাপী। আমরা এই তারুণ্য ও যোগাযোগ সক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে দেশবাসীকে ডেঙ্গু থেকে মুক্তি দিতে পারি। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ স্কাউটসের বিভিন্ন ইতিবাচক কার্যক্রম জনমনে স্বস্তির ছাপ ফেলেছে। তারা বাড়ি বাড়ি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার জন্য জনগণকে সচেতন করছে। বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডে শতভাগ বাসাবাড়ির তথ্য সংগ্রহ করেছে তারা। আমরা এখন থেকে সারা বছর ডেঙ্গু ও এডিস মশার বংশবিস্তার রোধে কাজ করবো, যার একটি পদক্ষেপ হলো আজকের এই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর।

আমরা ডেঙ্গু বিষয়ে একটি আধুনিক গবেষণা কেন্দ্রও স্থাপন করতে ইচ্ছুক, যার মাধ্যমে একটি ইন্টিগ্রেটেড ভেক্টর ম্যানেজমেন্ট স্ট্রাটেজি তৈরি করতে পারি। এ সমন্বিত কার্যক্রমকে ত্বরান্বিত করতে আজকের এই সমঝোতা স্মারক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

বহুপক্ষীয় এ সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষরকারী ৯টি সংস্থা, বিভাগ ও মন্ত্রণালয় হলো- বাংলাদেশ স্কাউটস, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার বিভাগ, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ, স্বাস্থ্য অধিদফতর, এটুআই এবং ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ। চুক্তি অনুযায়ী পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সংক্রমিত রোগ প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ ও বিশ্লেষণের মাধ্যমে প্রযুক্তির সহায়তায় নাগরিক পর্যায়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে যে যার অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করবে।

বাংলাদেশ স্কাউটসের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে জনসচেতনতা ও জনসম্পৃক্ততা জরুরি। বাংলাদেশ স্কাউটের কার্যক্রম দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত বিস্তৃত। কাজেই এ কাজে স্কাউটদের কাজে লাগাতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বসতবাড়ি ও আঙিনা পরিষ্কারের পাশাপাশি ড্রেন, লেক, খাল প্রভৃতিও পরিষ্কার রাখতে হবে এবং বায়ু ও নদীদূষণের মতো বিষয়গুলোও বিবেচনায় রাখতে হবে। সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরের পর ‘স্টপ ডেঙ্গু’ নামে একটি বিশেষায়িত অ্যাপের উদ্বোধন করা হয়। অ্যাপটি ব্যবহারের মাধ্যমে মশার প্রজনন স্থানের ম্যাপিং করা হবে। ফলে সংশ্লিষ্ট সংস্থাসমূহ যথাযথ কার্যক্রম গ্রহণ করতে পারবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান, বাংলাদেশ স্কাউটসের প্রধান জাতীয় কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব শাহ কামাল, স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব ইউসুফ হারুন প্রমুখ।

আরো সংবাদ পড়ুন

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
Close